বাণিজ্য বার্তা

আড়ং এর ৪০ বছরপূর্তি অনুষ্ঠানের পর্দা নামলো

বাংলাদেশের শীর্ষ লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড আড়ংয়ের ৪০ বছরপূর্তি উপলক্ষে রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়াম মাঠে আয়োজন করা হয়েছিল তিন দিনব্যাপী আড়ং ফোরটি ইয়ার্স ফেস্টিভ্যালের। শনিবার ছিল ফেস্টিভ্যালটির শেষ দিন।

তিনদিনের এই বর্ণাঢ্য আয়োজনে ছিল ১২টির বেশি হস্তশিল্প প্রদর্শনী। সেই সঙ্গে ছিল কর্মশালাও। যেখানে দর্শনার্থীরা সরাসরি কারু ও হস্তশিল্পীদের কাজের সঙ্গে পরিচিত হতে পেরেছেন।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সেরা হস্ত, কারুশিল্পী ও উদ্যোক্তাদের আজীবন সম্মাননা দেওয়া হয় আড়ংয়ের পক্ষ থেকে। ফ্যাশন শো-তে  প্রদর্শিত হয় হারস্টোরি, তাগা এবং তাগা ম্যান ব্র্যান্ডের নতুন পোশাক। আর এই নতুন পোশাকে র‌্যাম্পে হাঁটেন দেশের শীর্ষ স্থানীয় মডেলরা। একইমঞ্চে গান গেয়ে শোনান কণ্ঠশিল্পী এলিটা।

এছাড়া আর্মি স্টেডিয়াম মাঠে দর্শনার্থীদের জন্য ছিল বেশ কয়েকটি খাবারের স্টল, বাচ্চাদের জন্য আলাদা জায়গা ও পার্টনার প্রতিষ্ঠানের স্টলে বিশেষ সুবিধায় কেনাকাটার ব্যবস্থা।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৫ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়াম মাঠে ৪০টি পায়রা উড়িয়ে এ ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধন করেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। এসময় উপস্থিত ছিলেন ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান স্যার ফজলে হাসান আবেদ এবং আড়ংয়ের প্রধান ও ব্র্যাক এন্টারপ্রাইজের সিনিয়র পরিচালক তামারা হাসান আবেদ।
শেষ দিনের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয় সকাল ১১টায়। দিনভর চলে হস্তশিল্পের ওপর নানা কর্মশালা। এছাড়া ছিল বিভিন্ন কারুশিল্পের প্রদর্শনী। সন্ধ্যা সাতটায় শুরু শেষ দিনের কনসার্ট।

সন্ধ্যা সাতটায় মঞ্চে ওঠেন কণ্ঠশিল্পী মিনার। এরপর সাতটা ৫০ মিনিটে মঞ্চে আসেন জলের গান। সন্ধ্যা ৮টা ৫০ মিনিটে মঞ্চে ওঠেন নগর বাউল জেমস। তিনি একাধারে ১১টি গান গেয়ে শোনান উপস্থিত হাজারো শ্রোতা-ভক্তকে। এ সময় আর্মি স্টেডিয়াম ছিল সংগীতের মূছনায় মোহিত। সবশেষে ‘বিগি বিগি’ গান গেয়ে ৯টা ৫০ মিনিটে মঞ্চ ছাড়ানে জেমস। আর এর মাধ্যমেই মূলতা পর্দা নামে আড়ংয়ের ৪০ বছরপূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ‘আড়ং ফোরটি ইয়ার্স ফেস্টিভ্যালে’র।
উল্লেখ্য, আড়ং প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭৮ সালে, গ্রামীণ কারু ও হস্তশিল্পীদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্য নিয়ে। গত ৪০ বছর ধরে বাংলাদেশের আবহমান ঐতিহ্যের সঙ্গে আধুনিক ফ্যাশনের মেলবন্ধন ঘটিয়ে নিজেকে দেশের সবচেয়ে বড় ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে আড়ং। বর্তমানে আড়ংয়ের সঙ্গে সরাসরি কাজ করছেন ৬৫ হাজারেরও বেশি কারু ও হস্তশিল্পী। তাদের উৎপাদিত পণ্য সরাসরি বিক্রি হচ্ছে দেশজুড়ে আড়ংয়ের ২০টি আউটলেটে।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker