বাণিজ্য বার্তা

রমজানে প্রতিটি শিশুর জন্য ইউনিসেফ বাংলাদেশ ও লা মেরিডিয়ান ঢাকার যৌথ উদ্যোগ

৫ মে থেকে ৪ জুন পর্যন্ত পবিত্র রমজান মাস চলাকালে বাংলাদেশে শিশুদের পক্ষে তহবিল সংগ্রহে একটি চুক্তি সই করেছে ঢাকার লা মেরিডিয়ান হোটেল ও ইউনিসেফ বাংলাদেশ।

‘এই রমজানে প্রতিটি শিশুকে অগ্রাধিকার প্রদান’ শীর্ষক প্রচারাভিযানের অংশ হিসেবে রমজানজুড়ে ক্রেতারা লা মেরিডিয়ান ঢাকা থেকে বুফে সেহরি ও ইফতার কিনলে হোটেলটি ইউনিসেফ বাংলাদেশকে ক্রেতাপ্রতি ১ ডলার করে সহায়তা দেবে। এছাড়া এই প্রচারাভিযানের অংশ হিসেবে পুরো রমজান মাসজুড়ে এই হোটেলে তিনটি বাক্স রাখা হবে, যাতে অতিথিরা দান করতে পারেন।

ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি তোমু হোজুমি বলেন, ‘প্রতিটি শিশু, বিশেষ করে সবচেয়ে দুর্দশাগ্রস্তরা যাতে তাদের অধিকার ভোগ করতে পারে সে জন্য সহায়তা প্রদানে কাজ করে ইউনিসেফ। গুরুত্বপূর্ণ যেসব বিষয় বাংলাদেশে শিশুদের প্রভাবিত করে সেসব বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানো এবং শিশুদের মৌলিক চাহিদাগুলো পূরণ করতে রমজানে লা মেরিডিয়ান ঢাকা ও ইউনিসেফের মধ্যে এই অংশীদারিত্ব।’

দানের এই অর্থ বাংলাদেশি শিশুদের জন্য একটি উজ্জ্বল ও পরিপূর্ণ ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করতে ইউনিসেফকে সহায়তা দেবে। তাদের দুর্দশা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানো এবং তাদের জীবনমান উন্নত করার জন্য একটি প্রচারাভিযান এই অংশীদারিত্বের অংশ।

লা মেরিডিয়ান ঢাকার জেনারেল ম্যানেজার কনস্ট্যানটিনোস এস. গ্যাভরিয়েল বলেন, ‘এই রমজানে, সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের উন্নয়নের জন্য এই মহান দাতব্য প্রচারাভিযানের অংশ হতে পেরে আমরা আনন্দিত, আমাদের সবাইকে নিজ নিজ ভূমিকা পালন করতে হবে। উন্নতি ও প্রবৃদ্ধি রাতারাতি হয় না, বরং সমন্বিত প্রচেষ্টা ও পদক্ষেপের মাধ্যমে এটা ধীরে ধীরে বদলায়। ইউনিসেফের সঙ্গে এই কাজের অংশ হতে পেরে আমরা আনন্দিত।’

নবজাতকের প্রতিরোধযোগ্য মৃত্যু কমানো এবং শিশু ও মায়ের মৃত্যুহার হ্রাসসহ মূল সমস্যাগুলো নিয়ে ইউনিসেফের কাজকে শক্তিশালী করার জন্য সংগ্রহ করা অর্থ ব্যবহার করা হবে। এই নগদ অর্থ শিশুদের জন্য আরও ভালো পুষ্টি সরবরাহে এবং খর্বাকৃতির মাত্রা কমিয়ে আনার প্রচেষ্টা এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে।

লক্ষ্য হচ্ছে— প্রারম্ভিক শৈশবে বিকাশ এবং সব শিশুর জন্য শিক্ষার মান উন্নত করা, তাদের ও তাদের পরিবারের জন্য নিরাপদ খাবার পানি প্রাপ্তির সুযোগ নিশ্চিত করা। এসব ছাড়াও শিশুদের বিরুদ্ধে সব ধরনের সহিংসতা, শোষণ ও নিগ্রহমূলক আচরণের পরিসমাপ্তির জন্য এবং একইসঙ্গে কিশোর-কিশোরীদের জন্য সুযোগ বাড়ানো, সমাজে তাদের আরও বেশি করে সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ প্রদানেও সংগৃহীত এই তহবিল ব্যয় করা হবে।

বাংলাদেশে প্রতিটি শিশুকে তাদের অধিকার ভোগ করতে সহায়তা প্রদানে একটি কার্যকর অংশীদারিত্বের শুরু হিসেবে লা মেরিডিয়ান ঢাকা ও ইউনিসেফ বাংলাদেশ উভয়েই এই সহযোগিতামূলক কার্যক্রমকে স্বাগত জানিয়েছে।

আশা করা হচ্ছে যে, এই অংশীদারিত্ব অন্যান্য বেসরকারি খাতের অংশীদার এবং স্বতন্ত্র দাতাদেরও ভবিষ্যতে ইউনিসেফের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তহবিল সংগ্রহের প্রচেষ্টায় সামিল হতে উৎসাহিত করবে।

 

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker