ছুটি

একদিন গোলাপের দিন!

মৃন্ময়ী মোহনা ঃগোলাপ ফুল কে না ভালবাসে? চমৎকার সৌরভ, নয়নাভিরাম সৌন্দর্য অার ভালবাসার প্রতীক হিসেবে এই ফুলের কদর বহু অাগে থেকেই চলে অাসছে দুনিয়াজোড়া। এক গোলাপ উপহার দিয়েই তো কত প্রেমিক পুরুষ জয় করে নিল নারীর মন, অার যদি প্রেমিক তার প্রেমিকাকে নিয়ে যায় আস্ত এক গোলাপ রাজ্যে, তাহলে কী হবে বলুন তো?
না না, নারীর মন জয় করার উপায় নিয়ে লিখতে বসিনি, অাসলে বলতে চাইছিলাম সাদুল্লাপুর গ্রামের কথা। লোকে ভালবেসে যার নাম দিয়েছে গোলাপ গ্রাম। নামকরণের শানে নুযূল হল জমির পর জমি – যতটুকু চোখ যায় পুরোটা গোলাপ দিয়ে ঘেরা। অাদিগন্ত যেন গোলাপেরই রাজত্ব। এখানে গোলাপের চাষ হয়, পাইকারী দরে বিক্রি হয় হাটে। কম খরচে অাপনিও বাগান থেকেই কিনতে পারবেন অনেক গোলাপ। সারাবছরই এখানে যাওয়া যায়, তবে ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারির শেষ দিক পর্যন্ত গোলাপ বেশি থাকে।তাই বাগানগুলোও সুন্দর দেখায় বেশি।
যত খুশি ফুল কিনুন, ঘুরুন, ছবি তুলুন, তবে চাষী বা দায়িত্বে থাকা লোকের অনুমতি ব্যতীত অবশ্যই বাগানে ঢুকে পড়া, ফুল ছেঁড়া জাতীয় বাচ্চামো গুলো করবেননা। চাষী ভাইয়েদের সন্তানের মত প্রতিটা ফুল।চোখের সামনে সন্তানকে অত্যাচারিত বা বিরক্ত হতে দেখলে কোন বাবা মা অাপনাকে জামাই অাদর করবে, বলুন তো? তাই সাবধান!
গোলাপ গ্রাম যাওয়ার রাস্তাটা কিন্তু খুব সুন্দর অার সহজ। এখানে রয়েছে এক ঢিলে দুই পাখি মারার সুলভ ব্যবস্থা! বলছিলাম নৌকা ভ্রমনের কথা। গ্রাম দেখতে যাওয়ার আগে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় তুরাগ পার হতে গিয়ে চমৎকার নৌকা ভ্রমণও হয়ে যাবে।তবে তার অাগে যেকোন জায়গা থেকে যেতে হবে মিরপুর ১ এ। সেখান থেকে ‘মোহনা’ নামের বাস অাছে, যা দিয়াবাড়ি ঘাটে নামিয়ে দিবে। রিক্সায়ও অাসা যায়।ভাড়া ৩০ টাকার বেশি না। তারপর অাধঘন্টার একটা জম্পেশ নৌকা ভ্রমণ ( স্থানীয় বোটগুলোয় কিন্তু ভীড় বেশি ; চাইলে নৌকা রিজার্ভ করা যায়) , তারপর সাদুল্লাপুর ঘাট। ঘাট থকে অটো/ রিক্সা করে গোলাপ বাগান।তারপর হারিয়ে যান গোলাপের রাজ্যে। অানন্দ ভ্রমণে অারো কিছু রসদ যোগ করতে চাইলে ঘুরে অাসতে পারেন বিরুলিয়া জমিদার বাড়ি। গ্রামের শেষ মাথায় একটা সুদৃশ্য বটগাছও অাছে। এগুলো দেখে গোলাপ গ্রাম যেতে চাইলে সড়কপথই ভাল।ফিরে আসার পথে নৌকা ভ্রমণ সারা যাবে ( তবে অবশ্যই সন্ধ্যার পরে না; তখন ঘাটে নৌকা থাকেনা) সড়কপথে প্রথমে মিরপুর ১ থেকে লেগুনায় বিরুলিয়া ব্রিজ ।সেখান থেকে জমিদার বাড়ি ৫/৭ মিনিটের পথ। কাউকে জিগ্যেস করলেই দেখিয়ে দেবে।ঘোরাঘুরি শেষ করে অাবার ব্রিজ থেকে লেগুনায় উঠে পড়ুন, এবার গন্তব্য আক্রাইন বাজার।সেখান থেমে রিক্সা বা অটোতে গোলাপ গ্রাম।
এখন গোলাপ গ্রামে গোলাপের পাশাপাশি গ্লাডিওলাস অার ক্যাকটাসের চাষও হচ্ছে। সবমিলিয়ে অাপনার জীবন খাতার ভ্রমন পাতার ‘ডে ট্যুর’ অধ্যায়ে সুন্দর অারেক পর্ব লেখা হবে অাপনার কথা দিলাম!

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker