ছুটি

প্রজাপতির রাজ্যে একদিন

কামরুজ জামান : শেষ কবে প্রজাপতি দেখেছেন? কি মনে পড়ছে না ? মনে না পড়ার ই কথা। এই যান্ত্রিক শহরে যেদিকে তাকাবেন শুধু ইটের পাহাড়। কোথাও নেই একটু সবুজ আর সুবজের মাঝে অবুঝ প্রজাপতির উড়াউড়ি!
অ্থচ আমাদের সবার শৈশব স্মৃতিতে আছে হরকে রঙের প্রজাপতি।
প্রকৃতির অপরূপ অলঙ্কার প্রজাপতি। প্রজাপতির ডানার বাহারি রঙের ছটায় উদ্বেলিত হয় মানুষের মন। ফুটন্ত ফুলে প্রজাপতির ছুটে চলা দেখেতে কার না ভালো লাগে। প্রজপতি শুধু সৌন্দর্যই ছড়ায় না। ফুলের পরাগায়নের মাধ্যমে পরিবেশ সংরক্ষরণের অতিগুরুত্বপূর্ণ কাজটিও করে থাকে।
প্রজাপতি আর সবুজের অরণ্যে ঘুরে আসতে পারেন খুব সহজেই ।

সারাদেশে ৩০৪ প্রজাতির প্রজাপতি পাওয়া যায়। যার মধ্যে ১০৪ প্রজাতির দেখা মেলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে।
আর হুমকির মুখে থাকা প্রজাপতিদের কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে বংশবৃদ্ধি করার লক্ষে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে গড়ে তোলা হয়ছে দেশের প্রথম প্রজাপতি পার্ক ও গবেষণা কেন্দ্র। বিশ্ববিদ্যালয়ে ড. ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান গবেষণাগারের পাশেই প্রায় ৩ একর জায়গাজুড়ে এ পার্কটির পরিসর।
তাহলে দেরি কেন ? ঘুরে আসুন প্রজাপতি আর সবুজের রাজ্য ।
প্রজাপতির উড়াউড়ি আর সবুজের কোলে অপরুপ বিকাল দেখে আপনি যখন ঘরে ফিরবেন। সাথে নিয়ে ফিরবেন একটা সুন্দরতম বিকাল কাটানোর স্মৃতি।
যেভাবে যাবেনঃ ঢাকার গাবতলী বাসস্ট্যান্ড থেকে মানিকঞ্জ, নবীনগরগামী যেকোন বাসে উঠে নামবেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের গেটে । বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে রিকশা সবচেয়ে সহজলভ্য বাহন।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker