শনিবার, ২২ জুলাই ২০১৭
webmail
Mon, 20 Mar, 2017 02:51:59 PM
নতুন বার্তা ডেস্ক

করাচি: অবশেষে স্পট ফিক্সিংয়ের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন পাকিস্তানী টেস্ট অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক। পাকিস্তান সুপার লীগের দ্বিতীয় আসরে দুর্নীতি নিয়ে বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়, যার মধ্যে জাতীয় দলের পাঁচজন ক্রিকেটারও রয়েছেন।ইতোমধ্যেই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড তাদেরকে সাময়িকভাবে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করেছেন।

মিসবাহ বলেছেন, এই ধরনের দুর্নীতির সাথে যারাই জড়িত থাকবে তা প্রমাণিত হলে তাদেরকে আজীবন নিষিদ্ধ করা হোক। বিস্ময়কর হলো ২০১০ সালে লর্ডস টেস্টে স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মিসবাহ’র নেতৃত্বাধীন দলে ফিরে এসেছিলেন তরুন পেসার মোহাম্মদ আমির।

৪২ বছর বয়সী মিসবাহ সাম্প্রতিক ঘটনায় বেশ হতাশা প্রকাশ করেছেন। পিসিবি’র দুর্নীতিবিরোধী কোড ভঙ্গের দায়ে জাতীয় দলের শারজিল খান, খালিদ লতিফ, নাসির জামশেদ, মোহাম্মদ ইরফান ও শাহাজিব হাসানকে বিভিন্ন মেয়াদে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে পিসিবি।

এর মধ্যে চলতি মৌসুমে পিএসএল শুরুর প্রথম সপ্তাহেই নিষিদ্ধ হন শারজিল ও লতিফ। বাকি তিনজনের বিপক্ষে পরবর্তীতে অভিযোগ আনা হলে তাদের বিষয়গুলো এখনো তদন্তাধীন রয়েছে। এদের মধ্যে শারজিল, লতিফ ও শাহাজিবকে কমপক্ষে পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞার খড়গে পড়তে হতে পারে, অন্যদিকে ইরফানকে ছয় মাসের জন্য বহিষ্কার করা হতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত জামশেদকে সন্দেজভাজন একজনের সাথে আটক করা হলেও পরবর্তীতে জামিনে মুক্তি দেয়া হয়। মিসবাহ মনে করেন, সম্প্রতি ঘরোয়া টি২০ লীগে এই ধরনের ঘটনায় পাকিস্তানী ক্রিকেটের ইমেজ আরেকবার নষ্ট হয়েছে। এর ফলে গত সাত বছর ধরে রীতিমত লড়াই করে ফিরিয়ে আনা পাকিস্তানী ক্রিকেটের ইমেজ আরেকবার ধ্বংসের মুখে পড়েছে বলেই তার মত।

নতুন বার্তা/এমআর


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top