শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৭
webmail
Wed, 13 Sep, 2017 01:34:28 PM
নতুন বার্তা ডেস্ক

মুম্বাই: মুম্বই: ২০০৭, ভারতীয় ক্রিকেটের এই সময়টার কথা মনে পড়লেই বিশ্বকাপে  বাংলাদেশের কাছে লজ্জার হারের ছবিটা ফুটে ওঠে৷ গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচেই  সাকিব-মুশফিকুরদের কাছে জোড় ধাক্কা খায় দ্রাবিড় অ্যান্ড কোম্পানি৷ কার্যত বাংলাদেশের কাছে হারটাই শেষমেষ ভারতকে বিশ্বকাপের আসর থেকে ছিটকে দেয়৷

প্রায় এক দশক কেটে গেলেও ২০০৭ বিশ্বকাপের সেই লজ্জার দিনগুলোকে ভুলতে পারেননি সচিন তেন্ডুলকর৷ এখনও সেই দিনগুলোকেই ভারতীয় ক্রিকেটের সবচেয়ে খারাপ সময় বলে মনে করেন ক্রিকেটঈশ্বর৷ মাষ্টার ব্লাষ্টার জানিয়েছেন, ‘২০০৭ এর সময়টাই ভারতীয় ক্রিকেটের সবচেয়ে খারাপ দিন৷ আমরা নূন্যতম শেষ আটের যোগ্যতাও অর্জন করতে পারিনি৷ লজ্জার হারের পরই ভারতীয় ক্রিকেট নতুন করে নিজেদের গুছিয়ে নেয় এবং ঘুড়ে দাঁড়ায়৷’

ওপেনিং রাউন্ডে বাংলাদেশের কাছে হারের পরও ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি ভারত৷ দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছেও পর্যুদস্ত হতে হয়েছিল ‘মেন ইন ব্লু’কে৷ শেষ পর্যন্ত গ্রুপ পর্বের এই দুই ম্যাচে জঘন্য পারফরম্যান্সের জন্যই ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটি থেকে ভারতীয় দলকে খালি হাতে ফিরতে হয়েছিল৷

২০০৭ বিশ্বকাপের ধাক্কা কাটিয়ে এরপর ভারতীয় ক্রিকেটে আমূল পরিবর্তন করা হয়৷ দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য মহেন্দ্র সিংহ ধোনির কাঁধে নেতৃত্বের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়৷ অধিনায়কের পদে অভিষিক্ত হয়েই বাজিমাত করেন ধোনি৷ ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের পর ধোনির হাত ধরেই ফের ২০১১ পঞ্চাশ ওভারের বিশ্বকাপ জয়৷ চার বছরেই বিশ্বকাপ হারের কলঙ্ক ভুলে ২৮ বছর পর মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়েতে নতুন করে ইতিহাস লেখে ধোনি অ্যান্ড কোং৷ কেরিয়ারে দীর্ঘ ২১ বছর অপেক্ষার পর ধোনির নেতৃত্বেই বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্নপূরণ করেন সচিন৷

নতুন বার্তা/এমআর

Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top
    close