ক্রিকেট

অ্যাডিলেডে গোলাপি বলে খেলবই না, অনড় কোহালিরা

মুম্বাই: অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট বোর্ডের সমস্ত চেষ্টা আর চেঁচামেচিই ভেঙে পড়ার মুখে। অ্যাডিলেডে গোলাপি বলের টেস্ট খেলবে না শাস্ত্রী-কোহালির ভারত। পরিষ্কার করে বোর্ডকে জানিয়ে দিল ভারতীয় দল। এতটাই এককাট্টা এবং অনড় গোটা ভারতীয় দল যে, কোনও রকম অনুরোধেও আর কাজ হওয়ার নয়। ভারতীয় বোর্ডও কোহালিদের মনোভাব বুঝতে পেরে সাফ সাফ সেটা জানিয়ে দিয়েছে অস্ট্রেলীয় বোর্ডকে।

অস্ট্রেলীয় বোর্ড এখন দিন-রাতের টেস্টকে সমর্থন করছে। সফরকারী দলের বিরুদ্ধে অ্যাডিলেডে তারা দিন-রাতের টেস্ট রাখে। এর আগে নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা খেলে গিয়েছে। বছরের শেষ দিকে কোহালিদের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টই অ্যাডিলেডে দিন-রাতের করতে চাইছিল অস্ট্রেলীয় বোর্ড। এখনও তারা মরিয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু ভারতীয় দল এবং বোর্ড জানিয়ে দিয়েছে, সম্ভব নয়।

ভারতীয় দল পরিচালন সমিতি প্রশ্ন তুলেছে, কোনও রকম প্রস্তুতি ছাড়াই দিন-রাতের টেস্টে খেলবেন কেন কোহালিরা? ভারতে ঘরোয়া ক্রিকেটে সবে গোলাপি বলে দিন-রাতের চার দিনের ম্যাচ চালু করার চেষ্টা হচ্ছে। তা নিয়ে মত এবং পাল্টা মত, বিতর্কও তৈরি হয়েছে। ক্রিকেটারদের একাংশ জানিয়েছে, গোলাপি বলে রাতের দিকে খেলতে অসুবিধা হচ্ছে।

জাতীয় দলে খেলা ভারতীয় ক্রিকেটারদের কারও দিন-রাতের ম্যাচ খেলার তেমন অভিজ্ঞতাই নেই। কোহালিরা কেউ সাধারণত ঘরোয়া ক্রিকেটেও খেলেন না। সেই কারণে পরীক্ষামূলক ভাবে নিজেদের দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে যে গোলাপি বলে খেলা হয়েছে, সেটাও তাঁরা খেলেননি। বিনা প্রস্তুতিতে কেন দিন-রাতের টেস্ট খেলতে নেমে পড়ব, এই প্রশ্ন অনেকের।

কেউ কেউ আরও এগিয়ে মন্তব্য করেছেন, ‘‘অস্ট্রেলিয়া বলছে, সিরিজের প্রথম টেস্টটাই গোলাপি বলে দিন-রাতের ম্যাচ হবে। প্রদর্শনী ক্রিকেট খেলতে যাচ্ছি নাকি আমরা ওখানে?’’ উত্তেজিত ভাবে এঁরা আরও প্রশ্ন তুলছেন, ‘‘গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্ট খেলা যদি নিয়মই হত তা হলে তো আইসিসি-র এফটিপি-তে (নিয়ামক সংস্থার বানানো টেস্ট খেলা দেশগুলিকে নিয়ে দশ বছরের সূচি) এটাকে স্থান দেওয়া হত। সেটা তো করা হয়নি এখনও। আইসিসি এফটিপি-তে রাখতে শুরু করুক, তার পর দেখা যাবে।’’

অস্ট্রেলিয়া বলছে, টেস্ট দেখতে লোক হচ্ছে না বলে দিন-রাতের টেস্ট করতে চাইছে। কিন্তু ভারতের পাল্টা যুক্তি, ‘‘অস্ট্রেলিয়ার আগে আমরা ইংল্যান্ডে যাচ্ছি। পাঁচটা টেস্ট খেলব। ইংল্যান্ড তো আমাদের গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্ট খেলার জন্য জোরজার করেনি!’’ বছরের শেষ দিকে বক্সিং ডে টেস্ট বা নতুন বছরে নিউ ইয়ার টেস্ট খেলা নিয়েও বোর্ডের কর্তাদের মধ্যে প্রতিবাদের হাওয়া উঠেছে। ‘‘ওদের দেশে গিয়ে বক্সিং ডে টেস্ট খেলব কেন আমরা? ওরা আমাদের দেশে এসে দীপাবলি টেস্ট খেলুক তা হলে!’’

অস্ট্রেলিয়া বোর্ডের চিফ এগজিকিউটিভ অফিসার (সিইও) জেমস সাদারল্যান্ড ভারতীয়দের মনোভাব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন শুনে কারও কারও পাল্টা হুঙ্কার, ‘‘ওরা আগে সিরিশ কাগজ বিতর্কটা সামলে নিক। আমাদের মনোভাব নিয়ে না হয় পরে বিচারসভা বসাবে!’’

তাঁদের স্পষ্ট ইঙ্গিত স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নারদের বল-বিকৃতি বিতর্কের দিকে। অস্ট্রেলীয় বোর্ড স্মিথদের নির্বাসনের মেয়াদ না কমালে ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজেও নেই তাঁরা। অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের সফর শুরু হচ্ছে ২১ নভেম্বর ব্রিসবেনে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। কোহালিরা প্রথম টেস্ট খেলবেন ৬ ডিসেম্বর অ্যাডিলেডে। সেটা এখন দিনের বেলার টেস্টই হবে।

কিন্তু সিরিজের সাত মাস আগেই মনে হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়ে উত্তাপ ছড়ানো শুরু হয়ে গিয়েছে। কোহালি বনাম অস্ট্রেলিয়া— বরাবর যা হয়!

নতুন বার্তা/কেকে

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker