ক্রিকেট

মুম্বাই কাছে ১১ বারেই হারাল কেকেআর

ওয়াংখেড়ে: ২০০৭ সালে শুরু হওয়া আইপিএল–এর এবারে পা রেখেছে ১১ বছরে। তবে এই ১১ বারে যে দলটির কাছে সবচেয়ে বেশিবার হেরেছে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে, সেটি হল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। অথচ মুখে কিছু না বললেও কেকেআর–এর মালিক শাহরুখ খানের কাছে এটা একটা সম্মানের লড়াই। কিন্তু রোববার মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়েতে সেই সম্মানের লড়াইয়েই আবারও হারতে হল কলকাতাকে।

আইপিএল-এর সুপার সানডের প্রথম ম্যাচে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে ১৩ রানে হেরে গেল কলকাতা নাইট রাইডার্স।

রবিন উথাপ্পা (৫৪), অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক (অপরাজিত ৩৬) ও নীতীশ রানার (৩১) লড়াই ব্যর্থ হয়ে গেল। মুম্বইয়ের ৪ উইকেটে ১৮১ রানের জবাবে ৬ উইকেটে ১৬৮ রান করল কেকেআর।

টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন কার্তিক। এই ম্যাচে কেকেআর দলে দু’টি বদল হয়। রিঙ্কু সিংহের বদলে দলে আসেন নীতীশ। চোট পাওয়ায় শিবম মাভিও খেলতে পারেননি। তাঁর বদলে খেলেন প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ। মুম্বই দলে কোনও বদল হয়নি।
মুম্বইয়ের হয়ে ওপেনার সূর্যকুমার যাদব (৫৯), ওভিন লিউইস (৪৩) ও হার্দিক পাণ্ড্য (অপরাজিত ৩৫) ভাল ব্যাটিং করেন। সুনীল নারিন ও আন্দ্রে রাসেল দু’টি করে উইকেট নেন। কেকেআর-এর হয়ে উথাপ্পা, কার্তিক ও নীতীশ ছাড়া আর কেউ রান পাননি। হার্দিক দু’টি উইকেট নেন।

২০০৭ সালে শুরু হওয়া আইপিএল–এর এবারে পা রেখেছে ১১ বছরে। তবে এই ১১ বারে যে দলটির কাছে সবচেয়ে বেশিবার হেরেছে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে, সেটি হল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। অথচ মুখে কিছু না বললেও কেকেআর–এর মালিক শাহরুখ খানের কাছে এটা একটা সম্মানের লড়াই। কিন্তু রবিবার মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়েতে সেই সম্মানের লড়াইয়েই আবারও হারতে হল কলকাতাকে। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে ১৩ রানের হারে কঠিন হল প্লে–অফের রাস্তাও। এদিনের ম্যাচ রোহিত শর্মার কাছে ছিল মরণবাঁচন ম্যাচ। কারণ হারলেই প্লে–অফের রাস্তা আরও কঠিন হয়ে পড়ত গতবারের চ্যাম্পিয়নদের জন্য। আর টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন কেকেআর অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক। কিন্তু তাঁর সিদ্ধান্তকে ভুল প্রমাণ করেন মুম্বইয়ের দুই ওপেনার এভিন লুইস(৪৩), সূর্যকুমার যাদব(৫৯)।

দু’জনে মিলে প্রথম উইকেটে ৯১ রান যোগ করেন। তাও মাত্র ৯.২ ওভারে। এরপর অধিনায়ক রোহিত শর্মা(১১) এবং ক্রুনাল পাণ্ডিয়া (১৪) ব্যর্থ হলেও হার্দিক পাণ্ডিয়া ও জেপি ডুমিনি দলের রানকে ১৮০ রানের গণ্ডি পার করিয়ে দেন। ২০ বলে ৩৫ রান করে অপরাজিত থাকেন হার্দিক। নির্ধারিত ২০ ওভারে মুম্বইয়ের রান দাঁড়ায় ১৮১/৪। জবাবে ব্যাট করতে নেমে এদিনও শুরুটা ভাল করতে পারেনি কেকেআর। মাত্র ২৮ রানে দুই ওপেনার শুভমান গিল এবং ক্রিস লিন আউট হয়ে যান। এরপর উথাপ্পা(৫৪) এবং নীতিশ রানা(৩১) দলকে টানতে থাকেন। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ সময়ে অল্প রানের ব্যবধানে দুই ব্যাটসম্যানই আউট হয়ে যান। শেষদিকে অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক(অপরাজিত ৩৬) কিছুটা চেষ্টা করলেও সেটা যথেষ্ট ছিল না। ব্যাটের পাশাপাশি এদিন বল হাতেও সফল হার্দিক। ৪ ওভারে মাত্র ১৯ রান দিয়ে ২ উইকেট তুলে নেন তিনি।
নতুন বার্তা/কেকে

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker