লাইফস্টাইলস্বাস্থ্যহেলথ টিপসহোমপেজ স্লাইড ছবি

আমরা কেন ভুলে যাই?

এএইচএম কামাল পিন্টু: চেনা মানুষটির নাম হঠাৎ করেই মনে আনতে পারছেন না?কাল কী খেয়েছিলেন, আজ ভুলে গেছেন?কোথায় কী রাখছেন, পরক্ষণেই ভুলে যাচ্ছেন? তাহলে নিশ্চিতভাবেই আপনার স্মৃতি আপনার সঙ্গ দিচ্ছে না বা আপনার স্মৃতিবিভ্রম হচ্ছে। মস্তিষ্কে তথ্য ধারণ করে রাখার প্রক্রিয়া কিংবা মস্তিষ্কে ধারণকৃত তথ্যকে স্মৃতি বলে।

এই প্রক্রিয়ায় প্রথমে তথ্য আহরণ করে মস্তিষ্কে জমা করা হয় এবং দরকার অনুযায়ী সেই তথ্য আবার ভান্ডার থেকে খুঁজে নিয়ে আসা হয়। জমাকৃত তথ্য হারিয়ে গেলে কিংবা সময়মত খুঁজে পাওয়া না গেলে তা দূর্বল স্মৃতিশক্তির লক্ষণ। অত্যধিক মানসিক চাপের কারণে স্মৃতি-দৌর্বল্য দেখা দেয়। আমাদের মাথার মধ্যে নিউরন হলো সব ধরনের স্মৃতির এক ভাঁড়ার-ঘর। যেভাবেই হোক এই নিউরন যদি রোগে আক্রান্ত হয় তাহলে স্মৃতি লোপ পায়। মাথার মধ্যে এই নিউরনের কাজ হল যা কিছু ঘটে চলেছে তার হিসেব রাখা। তাই যদি কখনো নিউরন কোন ঝামেলার মধ্যে পড়ে তাহলে তাদের জমার হিসাব ভন্ডুল হয়ে গিয়ে স্মৃতিভ্রংশ ঘটায়।

বয়স বাড়লে অথবা অনেক সময় এমনি এমনিই আমরা অনেক কিছুই ভুলে যেতে থাকি। কিন্তু এই ভুলে যাওয়াই কখনও কখনও গুরুতর আকার ধারণ করে এবং স্বাভাবিক জীবনযাপনে বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়, তখন একে ডিমেনশিয়া বা স্মৃতিভ্রংশ বলে। কোন বড় দুর্ঘটনায় কবলে পড়লে বা খুব খারাপ কোনো খবর শুনলে অনেক সময় মানুষের স্মৃতিশক্তি লোপ পায়। এরকম অবস্থায় পড়লে মানুষ তার অতীতের সব কিছু ভুলে যায় এমনকি বন্ধু-বান্ধব আত্মীয়-স্বজন কাউকেই আর চিনতে পারে না। এমনকি নিজেদের নাম পর্যন্ত বেমালুম ভুলে যায়। নানা কারণে স্মৃতিভ্রংশ রোগ হতে পারে।

গবেষণা বলছে আমাদের খাদ্যাভ্যাসও এর জন্য কিছুটা দায়ী। স্মৃতিভ্রংশ রোধে খাদ্যাভ্যাস বেশ ভালো সুফল আনে। অনেক কারণেই স্মৃতি লোপ পেতে পারে যেমন মাথায় চোট লাগা, ওষুধপত্রের কুফল, মাথায় সার্জারি, মনের মধ্যে দারুণ টানাপোড়েন, খুব বৃদ্ধ হয়ে পড়া, খুব বেশি রকম নেশা করা এই রকম অনেক কারণে স্মৃতি লোপ পেতে পারে। স্মৃতি লোপ পেলে ঘটনাটা ঘটার আগে বা পরে সবকিছুই একদম মুছে যায় এরকম অবস্থা একদিন, সপ্তাহ, মাস বা বছর ধরে থাকতে পারে।

আবার কখনো কখনো পুরনো স্মৃতি যদি ফিরে আসে তাহলে আবার স্মৃতিভ্রংশ অবস্থায় যা ঘটেছে তার আর কিছুই মনে পড়বে না। তবে এটাও ঠিক যে স্মৃতিভ্রংশ একবার ঘটলে কিছু কিছু ফল থেকেই যায়। স্মৃতিশক্তি দুর্বল হয়ে পড়ে তাই এরকম স্মৃতিভ্রংশ অবস্থা যদি কখনো ঘটে তাহলে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তার দেখানো উচিত।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker