বিনোদনসিনেমা ও টেলিভিশন

সিরিজ রিভিউ: ফেলুদা ফেরত

আরিফ হাসান সাকিব: অনেক অপেক্ষার পর দেখে ফেললাম সৃজিত মুখার্জির ফেলুদা। ইন্টার থাকা অবস্থায় আমার ফেলুদা পড়া শুরু, সেই যে ফেলুদা গেলা শুরু করেছি, এখনো তা চলছে। একটা সিনেমাও বাদ দিই নি, সোনার কেল্লা থেকে ডবল ফেলুদা এরপর বায়োস্কোপে পরমব্রত এর আধুনিক ফেলুদা এবং শেষে নয়ন রহস্য দেখলাম যদিও একটি সিরিজেও আমি আমার আসল ফেলুদাকে পাই নি, সব্যসাচী কিংবা সৌমিত্রকে আমি খুজে বেড়িয়েছি প্রতিটি জায়গায়।

এবারের সিরিজটা নিয়ে সেজন্যই আমার খুব আগ্রহ ছিল কারণ আমি অনেকটা নিশ্চিত ছিলাম যে সৃজিত মুখার্জি আমাকে হতাশ করবে না, আসলেই সে আমাকে হতাশ করে নি। প্রথমেই আমি ধন্যবাদ দিতে চাই সৃজিতদাকে তার অভিনেতা নির্বাচনের জন্য, কয়েকটি চরিত্র বাদে সবগুলো চরিত্রে তার অভিনেতা নির্বাচন একদম পারফেক্ট ছিল। টোটা রায় চৌধুরী যে রকমের অভিনেতা, আমার মনে হয় তাকে আরো ভালোভাবে টলিউড ইন্ডাস্ট্রি ব্যবহার করতে পারত। টোটাকে দেখতে খুব ভালো লেগেছে ফেলুদার চরিত্রে, তবে তার সিগারেট ধরা, প্রথমদিকে ডায়লগ ডেলিভারিতে কিছুটা আড়ষ্টতা দেখা গেলেও পরবর্তীতে সে নিজেকে চরিত্রের সাথে মানিয়ে নিয়ে খুব ভালো অভিনয় করেছে।

জটায়ু চরিত্রে অনির্বাণ চক্রবর্তীকে আমার পারফেক্ট লেগেছে। অনেকদিন পর আমি জটায়ুকে দেখে শান্তি পেয়েছি, বিভু ভট্টাচার্য যেভাবে অবাক হতেন, সাধারণত হাস্যোজ্জ্বলভাবে প্রতিটি ডায়লগ ডেলিভারি করতেন অনির্বাণ ঠিক সেভাবেই কাজ করেছেন, একদম দশে দশ দেয়ার মত। তোপসেকে ভালো লাগলো না, গল্পে যে তার প্রেজেন্স রয়েছে সেটাই আমি বুঝতে পারি নি। এছাড়া অন্যান্য চরিত্রে যারা অভিনয় করেছেন, তারা প্রত্যেকেই গল্পের সাথে নিজেকে মানিয়ে নিয়েছেন, বিশেষ করে ধৃতিমান চ্যাটার্জি একটি ধন্যবাদ পেতেই পারেন। মহেশ চরিত্রে তাকে খুব ভালো মানিয়েছে এবং তার মৃত্যুর সময় ফেলুদাকে যেভাবে সংকেতটা দিয়েছেন তা খুবই ভালো হয়েছে। গল্প নিয়ে আসলে কিছু বলার নেই, সৃজিতদাকে ধন্যবাদ গল্পে কোনো ধরণের পরিবর্তন না করার জন্য। এছাড়া গল্পে তিনি যেভাবে ১৯৭০-৮০ এর দশকটা ফিরিয়ে এনেছেন সেজন্যও তার ধন্যবাদ প্রাপ্য।

আমি আসলেই সেই আগের সময়ে ফিরে গিয়েছিলাম, অন্যান্য সিনেমা বা গল্পে কিংবা সানডে সাস্পেন্স শুনলে আমি যে পিকনিক-পিকনিক একটা ফিল পেয়েছি, অনেকদিন পর সেই ফিল আমি পেয়েছি এই সিরিজে যা আমি আগের দুটো সিরিজে পাই নি। তবে ভিএফএক্সের কাজ আমাকে খুব হতাশ করেছে। তবে অনেকের কাছেই থিম মিউজিক নিয়ে হতাশা থাকলেও আমার কাছে এটি অসাধারণ লেগেছে। সবমিলিয়ে কিছু দিকে কমতি থাকলেও এই সিরিজটি দেখে আমার খুবই ভালো লেগেছে, আশা করছি পরবর্তী সিজনের গল্পটিতে আরো সুন্দর কাজ আমরা দেখতে পারব।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker